দেশবিনোদনরাজনীতি

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে ‘গুন্ডাই’, ‘দানব’এর তকমা, দিলো কঙ্গনা রানাওয়াত, সরব নেটিজেনরা

তৃণমূল এবার বাংলায় বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফের আসছে ক্ষমতায়। শাসক দলের বিপুল জয়ের পর তারকারাও তাদের বিভিন্ন পোস্টার মাধ্যমে করছে নজর। তবে জয়ের পর কঙ্গনা নিজেই মমতা ব্যানার্জির প্রশংসা করেছেন। তবে শুরুর থেকেই কঙ্গনা মোদির সমার্থক বলেই পরিচিত।

অপরদিকে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে উঠছে ব্যাপক অভিযোগ। আর এবার তাই বলিউড কুইন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে কটাক্ষ করলেন। বিজেপি নেতা স্বপন দাসগুপ্তের টুইট করার অভিযোগের ভিত্তিতে কঙ্গনা টুইট করে লেখেন ‘এটা ভয়ঙ্কর… গুন্ডাইকে মেরে ফেলার জন্য আমাদের সুপার গুন্ডাইয়ের প্রয়োজন… তিনি অব্যক্ত দানবের মতো, তাঁকে দমন করার জন্য দয়া করে ২০০০ সালের প্রথম দিকের বিরাট রূপটা দেখান মোদি জী… #PresidentRuleInBengal’।

প্রসঙ্গত, ভোট মিটতেই গোটা রাজ্য জুড়েই শুরু হয়েছে সংঘর্ষ। রাজ্যের সবথেকে বেশি ভয়ঙ্কর সংঘর্ষের খবর আসছে নানুর থেকে।বিজেপি প্রার্থী স্বপন দাসগুপ্ত অমিত শাহের কাছে চাইলেন নোরাপত্তা। তিনি নানুরে নিরাপত্তা বাহিনী পাঠানোর জন্য অনুরোধ করেছেন অমিত শাহ কে।

টুইটারে অমিত শাহ কে ট্যাগ করে স্বপন দাসগুপ্ত লিখেছেন ‘নানুরে (বীরভূম) আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। বিজেপি সমর্থকদের উপর প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করা উন্মত্ত জনতার হাত থেকে বাঁচতে হাজারের বেশি (নির্দিষ্ট ধর্মের) পরিবার মাঠে নেমে এসেছে। নারীদের শ্লীলতাহানির ঘটনা বা তার চেয়ে আরও খারাপ বিষয়ের খবর মিলছে।’ তারপরেই তিনি অমিত শাহের কাছে নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য অনুরোধ করেন।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যে কঙ্গনার বাঙালি ও বাংলার বিরুধ্যে করা অপমান জনক মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছে। কঙ্গনার মন্তব্যের বিরুধ্যে সরব হয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের এক আইনজীবী সুমিত চৌধুরী।তিনি কঙ্গনার বিরুধ্যে অভিযোগ করে বলেছেন ‘বাঙালি ও বাংলার বিরুদ্ধে অপমানজনক মন্তব্য করেছেন কঙ্গনা। বিজেপির পক্ষ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অশান্তি ছড়াতে চাইছেন কঙ্গনা। বাংলার আইনশৃঙ্খলার ভারসাম্য নষ্ট করতে চাইছেন অভিনেত্রী। এনআরসি ও সিএএ-র সমর্থনে কথা বলে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছেন তিনি’।

Back to top button