বিনোদন

অভিনেত্রীর মানবিক রূপ, অনাথ শিশুদের প্রতি বাড়ালেন সাহায্যের হাত, অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্ত

বলিউডের একজন অন্যতম আইটেম গার্ল রাখি সাওয়ান্ত। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই রাখি মানুষকে অবাক করেও কাজ করে এসেছেন। একদম স্ট্রেট ফরওয়ার্ড যা মন চায় তাই করেন তিনি। মুখে কোনো কিছু আটকে না। নানারকম আইটেম ড্যান্সে অনেকেরই মন জয় করে নিয়েছেন তিনি। এছাড়াও বহু সিনেমাতে শাহরুখ ও সালমানের সঙ্গে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করেছেওন তিনি।

অভিনেত্রী এছাড়াও বিগ বস ১৪ -এর মঞ্চে হাজির হন। এই সিজেনে তিনি একজন চ্যালেঞ্জার হিসেবে বসের ঘরে প্রবেশ করেন রাখি। রাখি নিজের দক্ষতায় বড় বড় প্রতিযোগীকে হারিয়ে সেরা ৫ এ নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন রাখি। কখনও তিনি টোম্বলির সঙ্গে তো কোনো সময় আলী ও জেসমিনের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েছেন। গত ২১ -এ ফেব্রুয়ারি গ্রান্ড ফাইনালের আগে রাখি ১৪ লক্ষ টাকা পেয়ে বিগ বসের হাউস ছাড়েন। তার মা ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন আর সেই টাকা দিয়ে তিনি মূলত মায়ের চিকিৎসা করেছিলেন।

রাখির মা এখন ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। রাখি যখন বিগ বসের ঘরে ছিলেন তখন মায়ের চিকিৎসার খরচ জুগিয়েছেন রাখেগির স্বামী রিতেশ। এখন রাখি ফিরে এসেছে সে নিজেই এখন তার মায়ের চিকিৎসা করতে পারবে। তিনি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, “তিনি বিগবস থেকে বেরিয়ে আসার মূল কারণ ছিল ফাইনাল জিতবেন কিনা তিনি জানতেননা কিন্তু এই টাকা তাঁর মায়ের চিকিৎসার জন্য তিনি ব্যবহার করতে পারবেন তাই তিনি এই পদক্ষেপ নিয়েছেন।”

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Viral Bhayani (@viralbhayani)

অভিনেত্রী বিগ বসের ঘর থ্যেকে বেরিয়ে আসার পর মায়ের চিকিৎসা করায় রাখি। এখন অনেকটাই সুস্থ আছেন তার মা জয়ী। অভিনেত্রী এখন আবার ব্যাস্ত হাপিয়ে পড়েছেন রিয়ালিটি শো আর সিনেমার শ্যুটিঙের কাজ নিয়ে। মায়ের চিকিৎসার জন্য প্রচুর পরিমানে অর্থের প্রয়োজন। সালমান যথেষ্ট সাহায্য করেছেন তাকে। বার অভিনেত্রী এই করোনা মরশুমে পথ শিশুদের সাহায্য করতে হাত বাড়িয়ে দিলেন। মুম্বাইয়ের রাস্তায় মুখে মাস্ক পড়ে শিশুদের হাতে আপেল, ডাব কিনে দিলেন। আর সেই সমস্ত ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে যায়। অভিনেত্রীর এই কাজ অনেকেরই কাছে প্রশংসনীয়। তার এই পোস্ট মুহূর্তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Pinkvilla (@pinkvilla)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button