বিনোদন

বলিউডে অভিনয় না করেই অল্প সময়ে ১০০ কোটির মালিক এই অভিনেত্রী

দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রশ্মিকা মন্দনা চলচিত্র জগতে যাত্রা শুরু করেন ২০১৬ সালে।তার অভিনীত কন্নড় সিনেমাটির নাম ছিল ‘কিরিক পার্টি’। ওই সিনেমায় দুর্দান্ত অভিনয়ের কারণে তাকে ডাকা হতো ‘কর্ণাটক ক্রাশ’ নামে।এরপর একাধিক তেলেগু ও কন্নড় সিনেমায় অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ফিল্মিবিট ডটকমের খবর অনুযায়ী রশ্মিকে মন্দনা সম্প্রতি ভারতের জাতীয় ক্র্যাশ -এ পরিণত হয়েছেন। তবে কিবাভে তিনি এই জাতীয় ক্রাশের খেতাব জিতলেন তার ব্যাখ্যা দিয়ে ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে গুগলে ‘ন্যাশনাল ক্রাশ অব ইন্ডিয়া ২০২০’ লিখে সার্চ করলে সেখানে রশ্মিকা মন্দানার ছবি দেখাচ্ছে গুগল। অপরদিকে সোশ্যাল মিডিয়া পিন্টারেস্ট বলছে, ‘ডিয়ার কমরেড’ সিনেমায় তাঁর অসাধারণ অভিনয় ও দক্ষিণী অভিনেত্রীদের মধ্যে তাঁকে বেশি গুগলে সার্চ করা হচ্ছে, আর সেই কারণেই তাঁকে ‘ভারতের জাতীয় ক্রাশ’ লিখে সার্চ করলে তার নাম ও ছবি দেখাচ্ছে গুগল।

২০১৬ সালে তিনি প্রথম অভিনয় করেন কন্নড় ফিল্ম ‘কিরিক পার্টি’তে। রশ্মিকে শুধু কন্নড় নয় সেই সাথে চুটিয়ে কাজ করেন তেলেগু ফিল্মেও। আর তার অভিনয় ও রূপে মুগ্ধ হয়ে যায় দর্শকরা। এই মুহূর্তে তাকে দর্শকরা এতটাই পছন্দ করছেন যে তিনি একাধিক সিনেমায় কাজ করে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই মালিক হয়ে গেছেন ১০০ কোটি টাকার। সারা ভারত খুঁজলেও অভিনয় জগতের এমন কোনো অভিনেত্রী খুঁজে পাওয়া যাবেনা যারা এতো অল্প সময়ে এতো টাকা উপার্জন করেছেন।

বক্তিগত জীবনে তিনি ২০১৭ সালে দক্ষিণী সিনেমার নায়ক রক্ষিত শেট্টিকে বিয়ে করেন। কিন্তু সেই নায়কের সাথে বিয়ের বছর ঘুরতে না ঘুরতেই তার বিচ্ছেদ হয়ে যায়। রক্ষিত শেট্টির সাথে তার প্রথম পরিচয় হয় প্রথম সিনেমা থেকেই। তবে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে কাজ করতে করতে রশ্মিকে গ্ল্যামার দুনিয়ায় পা রাখার পর তার প্রতিটা সিনেমায় বাণিজ্যিকভাবে সফল হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button