দেশবিনোদনরাজনীতি

কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ, দেশে ‘গণতন্ত্রের মৃত্যু’ হলো দাবি বলিউড কুইনের

তৃণমূল এবার বাংলায় বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফের আসছে ক্ষমতায়। শাসক দলের বিপুল জয়ের পর তারকারাও তাদের বিভিন্ন পোস্টার মাধ্যমে করছে নজর। তবে জয়ের পর কঙ্গনা নিজেই মমতা ব্যানার্জির প্রশংসা করেছেন। তবে শুরুর থেকেই কঙ্গনা মোদির সমার্থক বলেই পরিচিত।

অপরদিকে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে উঠছে ব্যাপক অভিযোগ। আর এবার তাই বলিউড কুইন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে কটাক্ষ করলেন। বিজেপি নেতা স্বপন দাসগুপ্তের টুইট করার অভিযোগের ভিত্তিতে কঙ্গনা টুইট করে লেখেন ‘এটা ভয়ঙ্কর… গুন্ডাইকে মেরে ফেলার জন্য আমাদের সুপার গুন্ডাইয়ের প্রয়োজন… তিনি অব্যক্ত দানবের মতো, তাঁকে দমন করার জন্য দয়া করে ২০০০ সালের প্রথম দিকের বিরাট রূপটা দেখান মোদি জী… #PresidentRuleInBengal’।

বলিউড এই অভিনেত্রী সিনেমার পর্দার বাইরে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে সবসময় আলোচনায় থাকতে পছন্দ করেন। তিনি তাই সারা বিশ্বের যেকোনো ইস্যু নিয়ে কথা বলেন। তাই কঙ্গনাকে অনেকেই আখ্যা দেন ‘বিতর্কের রানি’ হিসেবে। তিনি তার মন্তব্য গুলি প্রকাশ করেন বিখ্যাত মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারের মাধ্যমে।

আর এবার কঙ্গনার টুইটার একাউন্ট সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দিলো টুইটার কর্তৃপক্ষ। একাধিক ধরণের বিভিন্ন বিতর্কিত টুইট করায় সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কঙ্গনার টুইটার একাউন্ট টি। সম্প্রতি কঙ্গনা পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে একাধিক বিতর্কিত টুইট করেন। এমনকি কঙ্গনা তার টুইট মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে ‘আহত বাঘিনী’ বলে আখ্যা দেন।

কঙ্গনা তার টুইটার একাউন্ট স্থগিত হয়ে যাওয়ার প্রসঙ্গে ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে তার ক্যাপশনে লিখেছেন ‘গণতন্ত্রের মৃত্যু’ সেই সাথে তিনি পোস্টে আগের মতোই ব্যবহার করেছেন ‘#বেঙ্গলবার্নিং’ শব্দটি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Kangana Ranaut (@kanganaranaut)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button