বিনোদন

জিয়া খানকেও হেনস্থা করেছিলেন সাজিদ খান, ফের বিতর্কের মুখে পরিচালক

২০১৮ সালে ‘মিটু আন্দোলন’ শুরু হওয়ার পর বলিউড পরিচালক সাজিদ খানের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থা বেশ কয়েকটি অভিযোগ ওঠে। সেই বিতর্কের পর সম্প্রতি বিগ বসের প্রতিযোগী হিসাবে ফিরেছেন সাজিদ। আর ফিরতেই ফের বিতর্কের মুখে তিনি।

প্রয়াত অভিনেত্রী জিয়া খানকেও যৌন হেনস্থা করেছিলেন বলে অভিযোগ উঠল সাজিদের বিরুদ্ধে। এই অভিযোগ করেছেন জিয়ার বোন কারিশ্মা খান। সিনেমার মহড়ায় জিয়াকে পোশাক ও অন্তর্বাস খুলতে বলেছিলেন সাজিদ।
কারিশ্মা বলেছেন, মহড়া চলছিল। ও (জিয়া) চিত্রনাট্য পড়ছিল। সে সময় উনি (সাজিদ) দিদিকে অন্তর্বাস খুলতে বলেন। কী করবে ভেবে পাচ্ছিল না ও। পরে বলেছিল, ছবির শ্যুটিংই শুরু হলো না, তার আগে এত কিছু করতে হচ্ছে।

কারিশ্মার অভিযোগ তাকেও হেনস্থা করেছিলেন সাজিদ। কারিশ্মা বলেন, একবার দিদির সঙ্গে সাজিদ খানের বাড়িতে গিয়েছিলাম। রান্নাঘরের টেবিলে গা এলিয়ে বসেছিলাম। তখন আমার বয়স ১৬। আমার বসার ভঙ্গি আর পোশাক দেখে বলা হয় যে, আমি নাকি যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হতে চাই। এ কথা শোনা মাত্রই আমার দিদি জিয়া প্রতিবাদ করে। তারপরই আমরা ওর বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাই। বিসির ডকুমেন্টারি ‘ডেথ ইন বলিউডে’-এ এই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন জিয়ার বোন।

কারিশ্মার আরও অভিযোগ, সিনেমায় অভিনয়ের জন্য অভিনেত্রীদের কাছ থেকে নগ্ন ছবি চাইতেন সাজিদ। এমনকি নারীদের সামনেই পর্নোগ্রাফি দেখতেন বলেও সাজিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে।

২০১৮ সালে সাজিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর তাকে এক বছরের জন্য সাসপেন্ড করেছিল ‘ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ডিরেক্টর্স অ্যাসোসিয়েশন’। সেই বিতর্কের পর সম্প্রতি বিগ বসের প্রতিযোগী হিসাবে ফিরেছেন সাজিদ। কিন্তু আবার তাকে নিয়ে নতুন করে বিতর্ক শুরু হলো। বস্তুত, সাজিদ খানকে বিগ বসে দেখে খেপে উঠেছেন অনেক নারীই। এত অভিনেত্রীকে যৌন হেনস্থা করার পরও কেন তিনি জনপ্রিয়তা পাবেন, এমন প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন প্রাক্তন বিগ বস প্রতিযোগী উরফি জাভেদও।

Back to top button